ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ‘ক’ ইউনিট ভর্তি রেজাল্ট [মেধা তালিকা] ২০২৪

প্রকাশিত হলো ঢাবি ক ইউনিটের রেজাল্ট আজ ৪ জুলাই ২০২৪ তারিখ সোমবার প্রকাশিত হয়েছে এই রেজাল্ট। ঢাবির ক ইউনিটের রেজাল্ট। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের  ‘ক’ ইউনিটের ফল তৈরির কাজ শেষ হয়েছে। সবকিছু ঠিক থাকলে ০৫ই জুলাই ২০২৪ সোমবার ‘ক’ ইউনিটের ফল প্রকাশ করা হবে। মেধা তালিকা ও অপেক্ষামান তালিকা ও প্রকাশিত হবে এই দিন।ফলাফল ডাউনলোড করে জেনে নিন আপনি কত মার্ক পেয়েছেন। এর আগে গত ১০ই জুন ২০২৪ তারিখে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ক ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। eis.du.ac.bd এই সাইট থেকে ফলাফল ডাউনলোড করে মেধা তালিকা ও অপেক্ষামান তালিকা দেখে নিন।

ভর্তি পরীক্ষা ফলাফল ২০২৪

এছাডা রেজাল্ট প্রকাশিত হবার পর পর অনেকে খুজে কিভাবে ভর্তি হবে তাই আমরা ভর্তির বিস্তারিত নিয়ে আলোচনা করবো।

‘ক’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষার ফলাফল ২০২৪ SMS দেখুন

মোবাইল এসএমএসের মাধ্যমে ঢাবি “ক” ইউনিটের ফলাফল দেখুন। রেজাল্ট প্রকাশের পর পরই আপনি আপনার মোবাইল এসএমএসের মাধ্যমে আপনার KA ইউনিটের ফলাফল ডাউনলোড করতে পারেন। তাই আপনার মোবাইলের মেসেজ অপশনে যান এবং টাইপ করুন:

DU <space> KA <space> ROLL এবং 16321 নম্বরে পাঠান।

উদাহরনঃ DU KA 123456 এবং 16321 Sent

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ‘ক’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষার রেজাল্ট ২০২৪

ঢাবি ‘ক’ ইউনিট ভর্তি পরীক্ষার রেজাল্ট প্রকাশ ২০২৩-২০২৪ শিক্ষাবর্ষের ফলাফল।

এ বছর ঢাকাসহ আটটি বিভাগীয় শহরে ঢাবির ভর্তি পরীক্ষা নেওয়া হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় এবার পরীক্ষাকে কেন্দ্র করে ভিড় ছিল অন্যবারের চেয়ে কম।

ভর্তি পরীক্ষা রেজাল্ট ২০২৪ 

ঢাবির ক ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষার এই বছর ‘ক’ ইউনিটে ভর্তি পরীক্ষায় ঢাবিতে ৫৮ হাজার ৬০৩ জন, চবিতে ১১ হাজার ২১৭ জন, রাবিতে ১৩ হাজার ৩২৮ জন, খুবিতে ৭ হাজার ৯২২ জন, শাবিপ্রবিতে ৩ হাজার ৩০৫ জন, বেরোবিতে ১০ হাজার ১০৬ জন, ববিতে ৩ হাজার ৪২৫ জন, বাকৃবিতে ৭ হাজার ৮০৬ জন পরীক্ষার্থী অংশ নিয়েছেন। মোট অংশ গ্রহন করেছে

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের  ‘ক’ ইউনিটের বিভাগ ও আসন সংখ্যা

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) ২০২৩-২০২৪ শিক্ষাবর্ষের স্নাতকের বিজ্ঞান অনুষদভুক্ত ‘ক’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। বেলা ১১টা থেকে দুপুর সাড়ে ১২টা পর্যন্ত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এবং সাতটি বিভাগীয় পর্যায়ের পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে একযোগে এ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। এই ইউনিটে ১ হাজার ৮৫১টি আসনের বিপরীতে এবার ১ লাখ ১৫ হাজার ৭১২ জন শিক্ষার্থী আবেদন করেছেন। সে হিসাবে প্রতি আসনের জন্য লড়ছেন ৬২ জন।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ক ইউনিটের অনুষদগুলো হচ্ছে–

  1. বিজ্ঞান অনুষদ
  2. জীববিজ্ঞান অনুষদ
  3. ফার্মেসি অনুষদ
  4. আর্থ এন্ড এনভায়রমেন্টাল সায়েন্সেস অনুষদ
  5. ইঞ্জিনিয়ারিং ও টেকনোলজি অনুষদ

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ক ইউনিটের ইন্সটিটিউটগুলো হচ্ছে–

  1. তথ্য প্রযুক্তি ইন্সটিটিউট
  2. পরিসংখ্যান গবেষণা ও শিক্ষণ ইন্সটিটিউট
  3. খাদ্য ও পুষ্টিবিজ্ঞান ইন্সটিটিউট
  4. লেদার ইঞ্জিনিয়ারিং এন্ড টেকনোলজি ইনস্টিটিউট
  5. শিক্ষা ও গবেষণা ইন্সটিটিউট

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ‘ক’ ইউনিটের অধীন বিজ্ঞান, জীববিজ্ঞান, ফার্মেসী, আর্থ অ্যান্ড এনভায়রনমেন্টাল সায়েন্সেস, ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড টেকনোলজি অনুষদ এবং পরিসংখ্যান গবেষণা ও শিক্ষণ ইনস্টিটিউট, পুষ্টি ও খাদ্যবিজ্ঞান ইনস্টিটিউট, তথ্য প্রযুক্তি ইনস্টিটিউট, ইনস্টিটিউট অব লেদার ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড টেকনােলজি এবং শিক্ষা ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের অধীনে ৩৩টি বিভাগ রয়েছে।

২০২৩-২০২৪ শিক্ষাবর্ষ অনুযায়ী ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ক ইউনিটে আসন সংখ্যা ছিল মোট ১৮৫১ টি। ক ইউনিটে ৫ টি অনুষদ ৫ টি ইন্সটিটিউটের অধীনে মোট ৩৩ টি বিষয় রয়েছে।

ঢাবি ক ইউনিট বিষয় ভিত্তিক আসন সংখ্যা

পদার্থবিজ্ঞান ১০০
গনিত ১৩০
পরিসংখ্যান ৯০
রসায়ন ৯০
ফলিত গনিত ৬০
মৃত্তিকা, পানি ও পরিবেশ  ১০০
প্রাণিবিজ্ঞান ৮০
মনোবিজ্ঞান ৪০
মৎস বিজ্ঞান ৪০
উদ্ভিদবিজ্ঞান ৭০
প্রাণরসায়ন ও অনুপ্রাণ বিজ্ঞান ৬০
অনুজীব বিজ্ঞান ৪০
জিন প্রকৌশল ও জীবপ্রযুক্তি ২৫
দুর্যোগ বিজ্ঞান ও ব্যবস্থাপনা ৪০
ভূতত্ত্ব ৫০
ভূগোল ও পরিবেশ  ৫০
সমুদ্রবিজ্ঞান  ৪০
আবহাওয়াবিজ্ঞান  ২৫
ফার্মেসি  ৭৫
লেদার ইঞ্জিনিয়ারিং ৫০
ফুটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ারিং ৫০
লেদার প্রোডাক্টস ইঞ্জিনিয়ারিং ৫০
পুষ্টি ও খাদ্য বিজ্ঞান ৪০
সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ারিং ৫০
ফলিত পরিসংখ্যান ৫০
জীববিজ্ঞান বিষয়ক আই.ই.আই ১৯
ভৌত বিজ্ঞান বিষয়ক আই.ই.আই ২২
ইলেকট্রিকাল ও ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং ৭০
কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং ৬০
ফলিত রসায়ন ও কেমিকৌশল ৬০
নিউক্লিয়ার ইঞ্জিনিয়ারিং ৩০
রোবটিক্স ও মেকাট্রনিক্স ইঞ্জিনিয়ারিং ২৫
 মোট আসন ১৮৫১

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের  ‘ক’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা নম্বর বন্টন

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ক ইউনিটে বিজ্ঞান অনুষধের গতবারের মতো এবারও মোট ১০০ নম্বরের ভর্তি পরীক্ষা হচ্ছে। এর মধ্যে ৬০ নম্বরের বহুনির্বাচনী ও ৪০ নম্বরের লিখিত অংশ থাকছে। দুই অংশের উত্তর দেওয়ার জন্য ৪৫ মিনিট করে মোট ৯০ মিনিট সময় পাবেন শিক্ষার্থীরা।